Uncategorized

#রোজকার_গল্প

দৌড়, দৌড়, দৌড়…
গোবরডাঙা লোকালটা আর একটু হলেই মিস হয়েছিল আর কি। লেডিস পেরিয়ে ভেন্ডার, ভেন্ডার পেরিয়ে প্রথম দরজাটা কোনোরকমে ধরে একধাক্কায় শরীরটাকে ভাসিয়ে ডানদিক নিয়ে নিশ্চিন্ত হলাম।
ট্রেণ চলল। দমদমের মুখে বাঁক নিতেই ট্রেণের ধাতব চাকার সুরের সাথে আর এক সুর মিলল। পাশের চশমা পরা কাকুর মুখের ভাঁজে একরাশ বিরক্তি।কারণটা একটু পরেই স্পষ্ট। চাকার ধাতব সুর ছাড়িয়ে বগির গায়ের সুর ক্রমশ স্পষ্ট হচ্ছে। তালের সাথে সাথে বগির দুলুনি ক্লান্তিটাকে শরীর থেকে নিংড়ে নিচ্ছে।  পাশ থেকে”কে তুমি নন্দিনী, আগে তো দেখিনি” ভারি গলা ছুটল। তালে তালে হাততালির খপ খপ আর বগির গায়ে প্রাণবন্ত যান্ত্রিক সুর। “গুলাবি আঁখে যো তেরি দেখি..” রফি, কিশোর, মান্না থেকে শানু আসরে কে না গাইল। চোখ বুজে মাথা নড়ছে পায়ে তাল, মান্না কিশোর নিয়ে ঝগড়া, তাসপেটার শব্দ আর হকারের হরেক চিৎকার নিয়ে হাওয়া চিরে এগিয়ে চলেছে আপ গোবরডাঙা লোকাল। ছড়িয়ে পড়ছে কলকাতা।
-দাদা সামনে বারাসাত?
-সবাই নামবে। লাইনে আসুন।
চলল গোবরডাঙা লোকাল। আমার কলকাতা নিয়ে। আমার শহর, আমার আলসেমি, আমার বিনোদন, আমার ঝগড়াকে সাক্ষী করে
“আপকি নজরো নে সামঝা…”-চলল…

Advertisements
Standard